উত্তর থেকে দক্ষিণ এবার এক ঘণ্টায়―চালু হল কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বর পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবা

উত্তর থেকে দক্ষিণ এবার এক ঘণ্টায়―চালু হল কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বর পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবা

টিম যুগান্তর: কলকাতা এবং লাগোয়া জেলাগুলোর নিত্যযাত্রীদের জন্য সুখবর। উত্তর থেকে দক্ষিণ এবার এক ঘণ্টায়। আজ চালু হল কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বরের ৪.১ কিলোমিটারের নববর্ধিত মেট্রো পরিষেবা। এতদিন কবি সুভাষ থেকে নোয়াপাড়া অব্দি ২৮ কিলোমিটার মেট্রো পরিষেবা চালু ছিল। ২০১০-১১ অর্থবর্ষে রেলমন্ত্রী থাকাকালীন পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী শ্রীমতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গৃহীত প্রকল্পের ফলশ্রুতি আজকের এই কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বর মেট্রো। বহুরকম সমস্যা ও জমিবিভ্রাট কাটিয়ে শেষমেষ দক্ষিণেশ্বর মেট্রো চালু হয়ে গেল।

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদী পশ্চিমবঙ্গ সফরে এসে গতকাল অর্থাৎ ২২শে ফেব্রুয়ারি বিকেলে হুগলী জেলার চুঁচুড়ার ডানলপ ময়দানে তাঁর একটি রাজনৈতিক সভা থেকে ভার্চুয়াল মাধ্যমে এই নতুন পরিষেবার উদ্বোধন করলেন। ১৯৮৪ সালে দেশের প্রথম মেট্রো পরিষেবার উদ্বোধন করেছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধী। ৩৬ বছর পর আবার কোনও প্রধানমন্ত্রীর দ্বারা কলকাতা মেট্রো রেলের দ্বিতীয় বার উদ্বোধন হল। আজ থেকেই কলকাতার নবতম প্রান্তিক মেট্রো স্টেশন হল দক্ষিণেশ্বর।

রাজনৈতিক মহল অবশ্য প্রধানমন্ত্রীর মেট্রো রেলের চাকা গড়ানোর এই কর্মকাণ্ডের মধ্যে আসন্ন নির্বাচনের চাকা দেখতে পাচ্ছেন।

মেট্রো কর্তৃপক্ষের দাবি, পর্যাপ্ত ট্রেন থাকায় পিক আওয়ারেও যাত্রীদের খুব বেশি অপেক্ষা করতে হবে না। সপ্তাহের অন্য দিনগুলোতে কবি সুভাষ ও দমদমের মধ্যে আপ এবং ডাউন মিলিয়ে ২৪৪ টি ট্রেন চললেও ১৫৮ টি ট্রেন চলবে কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বর পর্যন্ত। ছুটির দিনে চলবে ১৫৬ টি ট্রেন। সারাদিন অবশ্য ৩ টি অতিরিক্ত ট্রেন চলবে দমদম এবং দক্ষিণেশ্বরের মধ্যে। অফিস টাইমে আগের মতোই ৬ মিনিট অন্তর ট্রেন চলবে।
দক্ষিণেশ্বর থেকে কবি সুভাষের উদ্দেশ্যে প্রথম ট্রেন থাকছে সকাল ৭ টায় আর শেষ ট্রেন রাত ৯ টা ১৮ মিনিটে। একই ভাবে কবি সুভাষ থেকে দক্ষিণেশ্বরের উদ্দেশ্যে প্রথম ট্রেন থাকছে সকাল ৭ টায় আর শেষ ট্রেন ৯ টা ৩০ মিনিটে। যাত্রীসাধারণের সুবিধার্থে সন্ধ্যা ৭ টা ২৪ মিনিটের পর থেকে দক্ষিণেশ্বর থেকে কবি সুভাষগামী সমস্ত ট্রেন কবি সুভাষ অবধি আসবে।

মেট্রোর সর্বনিম্ন ভাড়া ৫ টাকাই থাকছে। দক্ষিণেশ্বর থেকে বরানগর পর্যন্ত ৫ টাকা, নোয়াপাড়া পর্যন্ত ১০ টাকা, দমদম বা বেলগাছিয়া পর্যন্ত ১৫ টাকা, কালীঘাট পর্যন্ত ২০ টাকা এবং কবি সুভাষ পর্যন্ত ২৫ টাকা ভাড়া ধার্য হয়েছে। নতুন মেট্রো পথের সংযুক্তিকরণ হলেও সর্বনিম্ন এবং সর্বোচ্চ ভাড়া একই থাকছে।

শুধু স্থানীয় মানুষই নন, টালা ব্রিজের পুনর্গঠনের জন্য গোটা বি টি রোড বরাবর অফিস টাইমে যে দুর্ভোগ নিত্যযাত্রীরা ভোগ করেন তার অবসান এবার ঘটবে। নিত্যযাত্রীদের পাশাপাশি বাংলার ঐতিহ্যসমৃদ্ধ দক্ষিণেশ্বরের মা কালীর মন্দির দর্শনার্থীরাও প্রভূত উপকৃত হবেন। শহরের বাইরে অবস্থিত এই মন্দিরের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হলে আগের চেয়ে দর্শনার্থীর ভিড় বাড়বে বলেই মনে করছেন মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষ।

মেট্রো রেল আধুনিক ভারতের জনযোগাযোগ  ব্যবস্থার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন মাধ্যম। দ্রুততা, যাত্রীস্বাচ্ছন্দ্য এবং দূষণমুক্ত পরিবহন মেট্রো রেলের ইউএসপি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, মেট্রো রেল ভারতবর্ষের যোগাযোগ ব্যবস্থাকে ‘গ্লোবাল’ করেছে। মেট্রো রেলের ফলশ্রুতি হিসেবে, সামাজিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি পরিবেশগত উন্নয়নও যথেষ্ট গুরুত্ব রাখে।

শেয়ার করুন

0Shares
0
এখন সাম্প্রতিক