বৈদ্যুতিন গাড়ির জগতে টেসলা যদি অ্যাপল হয় তবে ভক্সওয়াগন হল স্যামসাং

বৈদ্যুতিন গাড়ির জগতে টেসলা যদি অ্যাপল হয় তবে ভক্সওয়াগন হল স্যামসাং

টিম যুগান্তর: বৈদ্যুতিন যানবাহনের বাজারে সর্বোচ্চ যার নাম সেই টেসলা নামক বৈদ্যুতিন গাড়ি উৎপাদন সংস্থাকে একপ্রকার ছাপিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত ভক্সওয়াগন নামক গাড়ি উৎপাদনকারী সংস্থাটি। সংস্থাটির সিইও হার্বার্ট ডাইস বিদ্যুৎ দিবসে একটি অনুষ্ঠানে বলেন যে বর্তমানে বৈদ্যুতিন যানবাহনের চল বেড়েছে এবং এটিই গতিশীলতার নতুন ভবিষ্যত। এবং এই বৈদ্যুতিন যানবাহনের বাজারে সর্বোচ্চ নামাধিকারী সংস্থা টেসলাকে টক্কর দিয়ে বৈদ্যুতিন যানবাহন তৈরীর ক্ষেত্রে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সংস্থা হিসেবে ফলক স্থাপন করতে প্রস্তুত তারা।
অনুষ্ঠানটিতে গাড়ির নকশা ও বিভিন্ন গ্রাহকমূলক পরিষেবা ও বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বলার পরিবর্তে এইধরণের গাড়ির যেটা আসল অংশ সেই লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি সম্পর্কে ব্যাখ্যা করা হয়। বৈদ্যুতিন গাড়ি তৈরীতে যা ব্যয় হয় তার ৩০% ব্যাটারি তৈরীতে ব্যয় হয়। শুধু এই কারণেই গাড়ি নির্মাতারা বৈদ্যুতিন গাড়ি তৈরীর দিকে ঝুঁকছেন তা নয়, তারা এই বিষয়গুলিও মাথায় রাখছেন যাতে গ্রাহকদের সর্বোচ্চ সুবিধা প্রদান করা সম্ভব হয়। ভক্সওয়াগন ঘোষণা করেছে যে ২০৩০ সালের মধ্যে সমগ্র ইউরোপ জুড়ে ছয়টি ব্যাটারি কারখানা তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে, যার ব্লুমবার্গএনইএফের অনুমান, প্রায় ২৯ বিলিয়ন ডলার ব্যয় হতে পারে। এটি এর ব্যাটারির নকশা একীকরণে এবং মূল্যবান ধাতব পুনর্ব্যবহারেও বিনিয়োগ করছে। বিনিয়োগকারীরা পরিকল্পনাটিকে গ্রহণ করেছেন এবং সোমবার ভক্সওয়াগন-এর সাধারণ শেয়ারগুলি ৩.৬% বাড়িয়ে দিয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে তারা আরও ২৯% শেয়ার বৃদ্ধি করেছেন।

কার্নেগি মেলন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক এবং বৈদ্যুতিক গাড়ির বিশেষজ্ঞ ভেঙ্কট বিশ্বনাথনও মনে করেন যে টেসলার ড্রাইভট্রেন ব্যাটারি এবং বৈদ্যুতিক মোটর যে প্রযুক্তিতে তৈরী হয়েছে তা উভয় দিক থেকেই বাকি সংস্থাগুলির থেকে প্রতিযোগিতায় চার-পাঁচ বছর এগিয়ে। তিনি বলেন, “একই ব্যাটারিতে তারা সর্বোচ্চ ড্রাইভিং পরিসীমা প্রদান করে।”
বেয়ার্ডের বিশ্লেষক কাল্লো ভক্সওয়াগন-এর উচ্চাকাঙ্ক্ষাকে সর্বোচ্চ নম্বর দেন – তবে তাঁর মতে ইলন মাস্ক কখনোই নিজের অবস্থান থেকে সরবেন না বরং তিনি বাজারে নিজের স্থান সুরক্ষিত রাখবেন । “আমরা ভক্সওয়াগনকে বৈদ্যুতিন যানবাহনের বাজারে ‘নন-টেসলা’ এক সংস্থা হিসেবে সম্ভাব্য অবস্থানে দেখি,” কাল্লো লিখেছেন। তিনি আরোও বলেন যে “টেসলা ব্যতীত আরও একটি বৈদ্যুতিন গাড়ির উত্থান হবে যেমন স্মার্টফোনের বাজারে অ্যাপল ব্যতীত উত্থান হয়েছে(অ্যান্ড্রয়েড)।”
অ্যাপল সংস্থাটি একটি বাস্তুতন্ত্র তৈরি করেছে যা আইওএস অপারেটিং সিস্টেম এবং অ্যাপ স্টোরের মতো সফ্টওয়্যার লক-ইনগুলির সাথে প্রসেসিং চিপস এবং ক্যামেরা সেন্সরগুলির মতো হার্ডওয়্যার উদ্ভাবনগুলিকে একীভূত করে। অনেক ব্যবহারকারীর জন্য অসুবিধাজনক হলেও অ্যাপল তার মালিকানাধীন বিদ্যুত চার্জিং কেবল ছাড়া অন্য চার্জিং সুবিধা বাজারে নিয়ে আসেনি।
টেসলা নিজস্ব ব্যাটারি রসায়ন, বৈদ্যুতিক মোটর এবং চালক-সহায়তা পদ্ধতি বিকাশ করে বৈদ্যুতিন গাড়িগুলির প্রযুক্তিগত মান আরোও উন্নত করেছে সাথে একটি সুপারচার্জিং নেটওয়ার্কও তৈরি করেছে যা অন্য গাড়িগুলি ব্যবহার করতে পারে না (অন্তত এখনও পর্যন্ত নয়)।
গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম এবং স্যামসাং ইলেক্ট্রনিক্স সংস্থা বিশ্বব্যাপী স্মার্টফোন বাজারের উল্লেখযোগ্য অংশ অর্জন করতে সক্ষম হলেও অ্যাপল সংস্থাটি একটি প্রভাবশালী ব্র্যান্ড এবং বাস্তুতন্ত্র তৈরি করেছে যা বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান সংস্থা হয়ে উঠেছে এবং যার জন্য গ্রাহকরা আরও বেশি অর্থ ব্যয় করতেও পিছপা হয় না ।
সোমবার কাল্লো যা বলেছেন সেই একই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন ইউবিএস এজি-র বিশ্লেষক প্যাট্রিক হামেল। তিনি ও তাঁর দল ভক্সওয়াগন আইডি ৩-এর সমস্ত অংশগুলি খুলে দেখার পর বলেন যে “ভক্সওয়াগন অ্যাপল হতে না পারলেও বৈদ্যুতিন গাড়ির বাজারে স্যামসাং হতে পারবে।”
স্যামসাং যেমন তার উন্নত মানের স্মার্টফোন ডিসপ্লের দ্বারা অ্যাপল কে পিছনে ফেলেছে তেমনই লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারির দ্বারা ভক্সওয়াগন টেসলার থেকে এগিয়ে থাকবে।
২০১২ সালে, সিলিকন ভ্যালি স্টার্টআপ কোয়ান্টামস্কেপ কর্পোরেশনে বিনিয়োগ করেছে। এটি সলিড-স্টেট ব্যাটারি তৈরি করেছিল যা ড্রাইভিং রেঞ্জকে ৫০% বাড়িয়ে এবং চার্জিংয়ের সময়কে ১৫ মিনিট হ্রাস করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। যদিও কোয়ান্টামস্কেপের ব্যাটারি ২০২৫ সালের আগে কোনও গাড়ীতে থাকবে না। এর ফলে কোম্পানির বাজার মূল্য দাঁড়িয়েছে প্রায় ২৩ বিলিয়ন ডলার যা ভক্সওয়াগন-এর সর্বোচ্চ মূল্যের প্রায় ষষ্ঠ ভাগ।
যদিও টেসলার বেল্টের অধীনে অনেকগুলি ব্যাটারি উদ্ভাবন রয়েছে, তবুও তারা সলিড-স্টেট ব্যাটারি তৈরীর ব্যাপারে কিছু জানায়নি।

শেয়ার করুন

0Shares
0
জ্ঞান বিজ্ঞান বিবিধ সাম্প্রতিক